PVR সিনেমার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে জাপান ফাউন্ডেশন কলকাতায় নিয়ে এসেছে জাপানিজ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ইন্ডিয়া ২০১৯-২০

আনন্দ সংবাদ : জাপানিজ ফাউন্ডেশন, নতুন দিল্লী, PVR সিনেমা-র সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ও জাপানের ১ নং তেল কোম্পানি ENEOS এর প্রযত্নে, সিটি অফ জয় কলকাতায় নিয়ে এসেছে জাপানিজ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ইন্ডিয়া ২০১৯-২০ এর তৃতীয় সংস্করণ। এই মাল্টি-সিটি ফেস্টিভ্যাল কলকাতায় যাত্রা শুরুর আগে দেশের ছটি শহরে অভুতপূর্ব সাড়া ফেলেছে। ফেস্টিভ্যালে বিভিন্ন ধারার ২৫টি সমসাময়িক জাপানী সিনেমা দেখানো হবে যার মধ্যে রয়েছে রোম্যান্স, ড্রামা, কমেডি, অ্যানিম ইত্যাদি। ১০-দিনের এই উৎসব কলকাতায় যাত্রা শুরু করেছে অত্যন্ত জনপ্রিয় জাপানী অয়ানিম ফিচার ফিল্ম ‘উইদারিং উইথ ইউ’ এর এক্সক্লুসিভ প্রদর্শনী দিয়ে, যার পরিচালক প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব মি মাকোতো শিনকাই। PVR মানি স্কোয়ার মলে শুরু হয়েছে এই উৎসব।
মি কাউরু মিয়ামোতো, জাপান ফাউন্ডেশন এর ডাইরেক্টার জেনারেল ভারতে এই মাল্টি সিটি জাপানিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্দেশ্যের উপর আলোকপাত করে উৎসবের সূচণা করলেন। উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশে ভাষণে তিনি বলেন, ভারত ও জাপানের মধ্যে দীর্ঘমেয়াদী বন্ধুত্বের সম্পর্ক রয়েছে এবং ভারতীয়রা যাতে সমসাময়িক জাপানী সিনেমার আনন্দ উপভোগ করতে পারেন,এবং একই সঙ্গে জাপানের সংস্কৃতি, ও জীবনযাত্রা সম্বন্ধে সম্যক জ্ঞান লাভ করতে পারেন সেই উদ্দেশ্য নিয়েই এই উৎসব। সাড়া ভারতে এই ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল যেভাবে সাড়া ফেলেছে এর জন্য তিনি উপস্থিত সকলের কাছে তাঁর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
মি কাউরু মিয়ামোতো, জাপান ফাউন্ডেশন এর ডাইরেক্টার জেনারেল, নতুন দিল্লী, বললেন, “কলকাতায় জাপানিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের শেষ পর্যায়ের সূচনা করতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। বিশ্বজুড়ে অত্যন্ত জনপ্রিয় জাপানী সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস, এবং কন্টেন্ট কলকাতার দর্শকদের সামনে তুলে ধরতে পেরে আমাদের সত্যি খুব ভালো লাগছে। এই শহর শিল্প, সংস্কৃতি, ও থিয়েটার এর জন্য বিশ্ব জুড়ে সমাদৃত। আমরা নিশ্চিত যে এই শহরের সিনেমা প্রেমীরা তাঁদের জন্য বিশেষ ভাবে বেছে নেওয়া অত্যন্ত মূল্যবান এই সব সিনেমা দেখে আনন্দিত হবেন”।
তিনি আরো বলেন, “আমাদের মনে হয়েছে জাপানিজ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এর তৃতীয় সংস্করণ ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত যে ভূল ছিল না তা প্রমাণিত। এই বছর উৎসবে বিভিন্ন শহরে আমরা দারুণ সাফল্য লাভ করেছি সেখানে মানুষ কোয়ালিটি কন্টেন্ট এর চাহিদার কথা আমাদের বারবার বলেছেন এবং এই আন্তর্জাতিক প্রোজেক্ট তাঁদের দাবি অনেকটাই মিটিয়েছে। আমরা আমাদের সব পার্টনারদের এর জন্য ধন্যবাদ জানাবো। PVR সিনেমা এবং আমাদের স্পনসর ENEOS এই উৎসবের সাফল্যের জন্য যে ভাবে সাহায্য করেছে তাতে আমরা গর্বিত”।
ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্য অতিথি কলকাতায় জাপানী কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল মি মাসায়ুকি টাগা স্ক্রিনিং এর জন্য আগত দর্শকদের স্বাগত জানান। তিনি বলেন, “ যে কোন সমাজকে ও তাঁর সংস্কৃতিকে উপলব্ধি করার জন্য সিনেমা একটা গুরুত্বপুর্ণ মাধ্যম আর জাপানী সিনেমায় সমাজের বিভিন্ন চিন্তাধারা, সেন্টিমেন্ট বা আবেগ এবং জীবনযাপনের চালচিত্র ফুটে উঠে। আমি আশা করবো যে, কলকাতার মানুষ এই সিনেমাগুলি উপভোগ করবেন এবং জাপান সম্পর্কে তাঁদের মনে ধারণা গড়ে উঠবে । এর মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো মজবুত হবে”।

JFF-ইন্ডিয়া ফিল্ম ক্যাটেলগের তৃতীয় সংস্করণে একাধিক জনপ্রিয় সিনেমা রয়েছে যেমন ডান্স উইথ মি, ইওর নেম, চিলড্রেন অফ দ্য সি, মাই ড্যাড ইজ আ হিল রেসলার !, টুয়েলভ সুইসাইডাল টিনস, মাসকারেড হোটেল, বেন্টো হ্যারাসম্যান্ট, সামুরাই শিফটারস, মিরাই, উই আর লিটল জোম্বিজ ইত্যাদি। এই সকল সিনেমার মাধ্যমে সমসাময়িক জাপানী সমাজের চিত্র ফুটে উঠে। যে সব সিনেমা বেছে নেওয়া হয়েছে তাতে দর্শকদের সুবিধার জন্য ইংরাজি সাবটাইটেল রয়েছে।

Please follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *