রোটারি সদনে “আন্না অ্যান্ড আহানা” প্রদর্শিত হল

তান্নি চৌধুরী

রামিজ আলি আহমেদ:সোমবার রোটারি সদনে প্রদর্শিত হল তান্নি চৌধুরীর লেখা কাহিনি চিত্রনাট্যে শর্ট ফিল্ম “আন্না অ্যান্ড আহানা”।”আন্না অ্যান্ড আহানা” মূলত ১০০বছরেরও বেশি সময় আগে অধুনা ইংল্যান্ড নিবাসী শালট পার্কিন্স গিলম্যান নামের এক সমাজবিদের লেখা একটি ছোটো গল্পের আধারে নির্মিত। যদিও এই গল্পটি ১৯৭০ সাল থেকেই বেশ কয়েকটি স্বল্পদৈর্ঘ্যর ছবির পাশাপাশি পূর্ণদৈর্ঘ্যর ছবির জন্যও অনুদিত হয়েছে, তবুও এক্ষেত্রে গল্পটিকে একটি অপ্রকাশিত দৃষ্টিকোণ থেকে দেখার চেষ্টা করা হয়েছে৷ “আন্না অ্যান্ড আহানা” সেই সব দক্ষিণ এশিয় মেয়েদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা ও বিচ্ছিন্নতার গল্প বলে, যারা সাম্প্রতিক কালে বৈবাহিক সূত্রে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দিচ্ছে এবং অবধারিত ‘ডমেস্টিক ভায়ােলেন্স’ এর শিকার হচ্ছে ।সাম্প্রতিক কালে আমেরিকা নিবাসী প্রবাসী এশিয় সম্প্রদায় গুলির মধ্যে বৈবাহিক ক্ষেত্রে পিতৃতন্ত্রের ছাপ বিভিন্ন সাহিত্য রচনার মধ্যে স্পষ্ট হয়ে উঠছে, যেখানে শারিরীক অত্যাচারের পাশাপাশি মানসিক ও অর্থনৈতিক অত্যাচারের নানা উল্লেখ পাওয়া যাচ্ছে;
যেমন অর্থনৈতিক স্বাচ্ছন্দ হ্রাস, পরিবারের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া, পাসপোর্ট কেড়ে নেওয়া ইত্যাদি ।

উনিশ শতকের গোড়ার দিকে রচিত “দ্য ইয়েলো ওয়াল পেপার” এক মহিলার দৃষ্টিভঙ্গী থেকে লেখা যার স্বামী তাকে হাওয়াবদলের জন্য খামার বাড়িতে নিয়ে আসে ৷ সেই কাহিনিরর পরতে পরতে নির্জনতা ও বিচ্ছিন্নতার প্ৰতিচ্ছবি দেখা যায় ৷ইংরেজীতে অনুদিত এই গল্পে আহানা কলকাতা শহরের বুকে বেড়ে ওঠা এক শিক্ষিতা মুক্তমনা মেয়ে যার বিয়ে হয় আমেরিকা নিবাসী এক ডাক্তারের সাথে আর পরিস্থিতিক্রমে শুরু হয় তার বন্দীদশা। পার্কিন্স-এর মূল গল্পের মতোই এখানে আহানার স্বামীও তার চরিত্রের সুক্ষ অনুভূতি গুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে থাকে৷ অহনা তার প্রাণের দােসর হিসাবে খুঁজে পায় আন্নাকে যে কোনো এক সময় ওই বাড়িতেই ছিলো, যার উপস্থিতি সে টের পায় তার শয়ন কক্ষের দেওয়ালে বন্দী অবস্থায় ৷ এই গল্পের প্রেক্ষাপট অধুনা রোড আইল্যান্ড শহর ।তান্নি চৌধুরী পেশায় রোড আইল্যান্ড কলেজের সোসিওলজির প্রফেসর।তাঁর গল্পে সুন্দরভাবে উঠে এসেছে সম্পর্কের সুক্ষ দিকগুলো, তিনি এই ছবির সৃজনশীল পরিচালকও বটে।শর্টফিল্মটি পরিচালনা করেছেন বোস্টন নিবাসী অরুপ দে।অভিনিয় করেছেন ইয়াগনিক পান্ড‍্য,জয়তী ব্যানার্জী, পারমিতা সেন,গৌরব আগরবাল, ঈশা ইঙ্গল,জে-করি আ,কোতেশ্বারা সালমন।
এদিন তান্নি চৌধুরীর পরবর্তী শর্ট ফিল্ম “আফটার অমল”-এরও সাংবাদিক সম্মেলন হয়ে যায়।তান্নি চৌধুরীর পরিচালক হিসেবে এটি ডেবিউ ছবি।অভিনয় করেছেন বরুণ চন্দ, দেবলীনা সেন,সাগ্নিক মুখার্জী, শিপ্রা মুখার্জী।সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন নীলাদ্রি ব্যানার্জী।ছবিটির কাহিনি পরিচালক এখনই খোলসা না করতে চাইলেও এটুকু জানিয়ে রাখলেন এটিও সম্পর্কের গল্প।

কলকাতার রোটারি সদনে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনের ছবি তুলেছেন রাজীব মুখার্জী

তান্নি চৌধুরীর পরিচালনায় প্রথম ছবি “আফটার অমল”-এর পোস্টার
Please follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *