মনেরও ঘুণ ধরে

      By Ramiz Ali Ahmed      ছবি:ঘুণ

     পরিচালক:শুভ্র রায়

     অভিনয়:সমদর্শী দত্ত,সুচিস্মিতা ঠাকুর,সৌরভ দাস,পৌলমি দাস,অনুষা বিশ্বনাথন,ডাঃ কৌশিক ঘোষ

ইনফোকেয়ার আই এন্টারটেইনমেন্ট নিবেদিত প্রসেনজিৎ মহাপাত্র প্রযোজিত শুভ্র রায় পরিচালিত “ঘুণ” মুক্তি পেল।এ ঘুণ কাঠে নয়,সম্পর্কে ঘুণ।
আসবাবপত্র যেমন দীর্ঘদিন থাকতে থাকতে পুরোনো হলে ঘুণ ধরে,ঠিক তেমনই পুরানো সম্পর্কগুলো দীর্ঘদিন একসাথে থাকতে থাকতে ঘুণ ধরে যায়।আর সেই ঘুণ থেকেই শেষ হয়ে যায় সম্পর্ক।এরকমই সম্পর্কের টানাপোড়েনের গল্প নিয়েই পরিচালক শুভ্র রায় তৈরি করেছেন তাঁর প্রথম ছবি ‘ঘুন’।ছবির ছটি চরিত্র- জয়(সৌরভ দাস),পুনম (পৌলমি দাস),বিনীতা (সুচিস্মিতা ঠাকুর),অমিত(সমদর্শী দত্ত),সিমি(অনুশা বিশ্বনাথন),সিমির বাবা বিক্রম (ডঃ কৌশিক ঘোষ)।দুটি বিশেষ চরিত্রে কমলেশ্বর মুখার্জী, রবি রঞ্জন মৈত্র।
এই চরিত্রগুলো আমাদের অতি চেনা। দৈনন্দিন জীবনে আমরা এইরকম চরিত্রের প্রত্যেকেই সম্মুখীন হই। কোথাও গিয়ে এই ছটি চরিত্রের মধ্যে একটা যোগসূত্র তৈরী হয়।কাহিনি ও চিত্রনাট্য লিখেছেন সৌরভ মালাকার ও বিশ্বজিৎ হালদার।শুভ্র রায়ের নির্দেশনার মুন্সিয়ানায় প্রতিটি চরিত্র হয়ে উঠেছে জীবন্ত।
পরিচালকের প্রথম ছবি,সৎ প্রচেষ্টা,বেশ টান টান চিত্রনাট্যের মধ্যে দিয়ে ছবির গল্প এগোয়।তবে ছবির দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম দিকে চিত্রনাট্যর গতিটা আরেকটু বেশি থাকলে ভালো হতো। সঙ্গীত পরিচালনায় প্রসেনজিৎ মহাপাত্র।বহুদিন ধরে মুম্বাইতে সঙ্গীত জগতের সঙ্গে যুক্ত থাকা প্রসেনজিৎ এই প্রথম বাংলা ছবির সঙ্গীত পরিচালনা করলেন।আর প্রথম ছবিতেই তিনি তাঁর সুরে দর্শককুলকে জয় করে নিলেন।রাজীব দত্তর লিরিক্স-এ তাঁর সুরে প্রতিটি গান মন ছুঁয়ে যায়।বিশেষ করে শুভশ্রী দেবনাথ ও সুজয় ভৌমিকের ‘পালকে নাম’ গনাটির কথা আলাদা করে উল্লেখ করতেই হয়।শুভ্র-প্রসেনজিৎ এই জুটি টলিউডে বেশ লম্বা রেসের ঘোড়া হবে তার আভাস “ঘুণ”-এ দিয়ে রাখলেন।

প্রিয়া প্রেক্ষাগৃহে অনুষ্ঠিত “ঘুণ”-এর প্রিমিয়ারের এক্সক্লুসিভ ছবি তুললেন আমাদের আনন্দ সংবাদ-এর প্রধান চিত্রগ্রাহক বিশ্বজিত সাহা

Please follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *