“এখনকার ব্যান্ডরা কম্প্রোমাইজ করছে”: সুমেলী

By Ramiz Ali Ahmedআমরা যারা মেট্রোতে যাতায়াত করি তারা কোনো না কোনো মেট্রো চ্যানেলের ইনকোডা টিভিতে ‘দেশেতে প্রথমবার বাঙালির অহঙ্কার/চৌত্রিশ বছর পেরিয়ে বাড়ছে যে বৃত্ত…’ গানটি অবশ্যই শুনেছি ও দেখেছি।মেট্রোর বর্তমান থিম সং এটাই।আর এতসুন্দর গানটি উপহার দিয়েছে ‘মিত্রাস’ নামক একটি জনপ্রিয় বাংলা ব্যান্ড।ব্যান্ডের লিড ভোকালিস্ট সুমেলী ঘোষ চক্রবর্তী সম্প্রতি একান্ত সাক্ষাৎকারে জানালেন,”এটা আমাদের ‘মিত্রাস’ ব্যান্ডের কাছে খুব বড় পাওনা।” সুমেলীর জন্ম ও বড় হয়ে ওঠাটা মধ্যমগ্রামে।মধ্যমগ্রাম গার্লস হাই স্কুল থেকে স্কুলিং-এর পর সরোজিনী নাইডু কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন করেন।তারপর তিনি ক্যালক্যাটা ইউনিভার্সিটি থেকে রবীন্দ্রসঙ্গীত নিয়ে মাস্টার্স।মা রিনা ঘোষ গান করতেন।সেখান থেকেই গানের প্রতি ভালোবাসা তৈরি হয় সুমেলী।বাবা সরকারী চাকুরিজীবি হলেও গান শিখতে ও করতে খুব অনুপ্রেরণা দিতেন তাঁকে।এইভাবেই ছোট থেকেই গানের তালিম শুরু হয় সুমেলীর।পরবর্তীকালে পল্লব কীর্তনিয়া ও সমিতা মুখোপাধ্যায়ের কাছে রবীন্দ্রসঙ্গীত ও স্বপন বসুর কাছে লোকসঙ্গীতের তালিম নেন। একটা অন্য কিছু করার প্লানিং নিয়ে সুমেলী আরো তিন সদস্য নিয়ে খুলে ফেললেন বাংলা ব্যান্ড ‘মিত্রাস’ অর্থাৎ ‘মিউজিক ইজ দ্য রিদম অফ সোল’। ২০১৪ সালে ৮টি রবীন্দ্র গান নিয়ে আ্যলবাম ‘মনে রাবে কিনা রবে’ প্রকাশ করে ‘মিত্রাস’।এরপর ২০১৬ তে নিজেদের লেখা গান নিয়েই মিউজিক ভিডিও জীবনান্দর ‘বনলতা সেন’ প্রকাশ।গানটি বেশ ভালো লাগলো শ্রোতাদের।এরপরই ২০১৭ তে কল গার্লদের লাইফ স্টাইলের উপর সাহসী মিউজিক ভিডিও ‘বেশ করেছিস’ প্রকাশ হতেই চারদিকে শোরগোল পড়ে গেল।২০১৮ তে প্রকাশ মেট্রোর গানটি।’মিত্রাস’-এর প্রতিটি গানের কথা দেবরাজ চক্রবর্তীর।সুমেলী জানালেন,”দেবরাজের লিরিকস গুলো এতো সুন্দর যে মানুষের ভালো লাগবেই।” সুমেলী আরেক ব্যান্ড সদস্যর নাম অবশ্যই করতে চান তিনি পার্থ।পার্থ ‘মিত্রাস’-এর জন্মলগ্ন থেকে এখন পর্যন্ত সুমেলীর সঙ্গে আছেন।এখন তো ব্যান্ডের অবস্থা আগের মতো নয়,এই প্রসঙ্গে সুমেলী জানালেন,”আসলে এই ব্যাপারটার জন্য ব্যান্ডরাই দায়ী।নতুন যে ব্যান্ডেরা আসছে তারা প্রোগ্রামে ডিমান্ড অনুযায়ী কভার সং গাইছে, ফলে নতুন গান তারা উপহার দিতে পারছে না।আসল কথা তারা কম্প্রোমাইজ করছে।এটা থেকে না বেরোতে পারলে ব্যান্ড কালচার ধীরে ধীরে শেষ হয়ে যাবে।এছাড়াও অনেক কারণ আছে।” ব্যান্ডের লিড ভোকালিস্ট একজন মেয়ে-প্রসঙ্গ তুলতেই সুমেলীর উত্তর,”যখন পথ চলা শুরু করেছিলাম তখন লিড ভোকালিস্ট সাধারণত ছেলেরাই থাকত,তবে এখন সময় বদলেছে,এখন প্রচুর ব্যান্ডের লিড ভোকালিস্ট মেয়েরা।অসুবিধে কি আছে!শ্রোতারা ভালো গান শুনতে চান।ছেলে না মেয়ে এটা দেখেন না।” সুমেলী গানের পাশাপাশি সেই ২০০৫ সাল থেকে ডাবিং আর্টিস্ট(ভয়েস ওভার)হিসাবে কাজ করে চলেছেন।এটা তাঁর একটা নেশা।তিনি প্রচুর জিঙ্গেলসেও কাজ করেছেন।তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘হরলিক্স’,’আনমল বিস্কুট,সেনকো গোল্ড,সাগরিকা মিউজিক,এভারেস্ট গুঁড়ো মশালা,প্রেস্টিজ ননস্টিক ইত্যাদি।

 

 

Please follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *