অযান্ত্রিক-এর নবতম প্রযোজনা

এই সময়ের নিরিখে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এবং প্রাসঙ্গিক এক প্রযোজনা নিয়ে এল অযান্ত্রিক নাট্য সংস্থা।অ্যাকাডেমিতে সমরেশ মজুমদারের কাহিনী অবলম্বনে সোমনাথ বড়ালের নাট্যরূপে ‘এত রক্ত কেন’ দেখতে দেখতে মনে হল এই নাটক শুধুই সন্ত্রাস আর বিচ্ছিন্নতাবাদীদের আক্রমন- প্রতিআক্রমনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী চিৎকার নয়,এই নাটক সাম্প্রতিক সময়ের মূল্যায়নে পথ দেখাবে ইতিহাসকে। ‘এত রক্ত কেন’ নাটকে দেখা যায় বেশ শক্তিশালী রিপোর্টার বাসুদেবকে।সাংবাদিকতার দৌলতে সব ধরনের মানুষের সঙ্গে তার যোগোযোগ।স্ত্রী নীলার সাথে সময় পেলে খুনসুটি হয়।বাসুদেবের শ্বশুরমশাই পি.বি.বসু পুলিশের ডি.আই.জি।সেদিন তাঁর চাকুরী থেকে অবসরের দিন।তাই মেয়ে জমাই হাজির হয়।আড্ডার সময় জানা যায় বাসুদেবের একমাত্র শ্যালক ডাক্তার সৌমিত্র ট্রান্সপার হয় পাহাড়ি অঞ্চলের প্রত্যন্ত গ্রামে।বাড়ির অমত থাকলেও সৌমিত্র সেখানে যান।কিন্তু কিছুদিনের মধ্যে সৌমিত্রকে অপহরন করে নিয়ে যায় এক জঙ্গিগোষ্ঠী।তার প্রানের বিনিময়ে এককোটি টাকার মুক্তিপন দাবি করলো তারা।পুলিশের কাছে খবরে গেলেই মরতে হবে তাকে।আসরে নামেন বাসুদেব। তারপর কি হয়?বাসুদেব কি পারবে শ্যালক সৌমিত্রকে জঙ্গিদেরকে বাঁচাতে!এক রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনায় টানটান নাটক ‘এত রক্ত কেন’। নাটকে উঠে আসে জঙ্গিদের চিন্তাভাবনা,আন্দোলনের নামে কিভাবে সাধারন মানুষকে বিপদে ফেলে,জঙ্গি নেতারা নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য কিভাবে উপজাতিদের ব্যবহার করে। নাট্য প্রযোজনার ক্ষেত্রে অযান্ত্রিক নাট্য সংস্থা ‘ভূশন্ডীর মাঠে’ , ‘প্রথম পাঠ’, ‘অপরাজিত ৯৪’.-এর মতো এই নাটকেও তাঁদের সুনাম বজায় রাখলেন নিঃসন্দেহে। এই নাটকে চন্দ্রা দেব-এর নির্দেশনা উল্লেখনীয়।টানটান এই নাটকটি তাঁর নির্দেশনার মুন্সীয়ানায় সত্যিই উপভোগ্য হয়ে উঠেছিল ।বাসুদেবের চরিত্রে সোমনাথ বড়াল অনবদ্য। নীলার ভূমিকায় চন্দ্রা দেব প্রাণবন্ত অভিনয় করে দর্শকদের মুগ্ধ করেছেন।অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে সাবলীলতার সঙ্গে অভিনয় করেছেন-তন্ময় বসু,অনিন্দ্যসুন্দর গুপ্ত, অাশিস ভট্টাচার্য, কুন্তল রায়, অভিজিৎ দাস, সুদীপ্ত চট্টোপাধ্যায়,স্নেহাংশু বিশ্বাস,মনোজিৎ ভট্টাচার্য, মুকুলেশ দাম, সুব্রত দত্ত,নবকুমার হালদার,রবিশঙ্কর মৈত্র, দীপ মুখোপাধ্যায়। নাটকের সুর ও আবহ রচনা করেছেন বাণীপ্রসাদ বণিক , গান খরাজ মুখোপাধ্যায়ের, মঞ্চসজ্জা করেছেন সমীর সরকার,আলো বাদল দাসের, শব্দ প্রক্ষেপনে পার্থ রঞ্জন দাস। রিভিউ:রামিজ আলি আহমেদ

Please follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *